দরজা বিহীন বাড়ি, থানাহীন গ্রাম!

ফিচার

বাড়ি থাকলে দরজা থাকবে না এমনটি হয় নাকি? আর আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় দেশের অভ্যন্তরে প্রতিটি জায়গাই কোন না কোন থানার আওতায় থাকবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু এই দুইটি গুরুত্বপূর্ণ বাড়ির দরজা ও থানা নেই ভারতের মুম্বাইয়ের মহারাষ্ট্রের প্রত্যন্ত একটি গ্রাম।

আহমেদনগর থেকে ৩৫ কিমি দূরের সেই গ্রামের ‌নাম শনি শিঙ্গনাপুর। এখানে বসবাস করেন প্রায় পাঁচ হাজার মানুষ। মূলত আখ চাষিদের বাস এই গ্রামে। আর দীর্ঘদিন ধরেই অদ্ভুত এক কারণে খবরের শিরোনামে রয়েছে শনি শিঙ্গনাপুর।

জানা গেছে, এই গ্রামের বাড়িগুলিতে আসলে কোনো দরজা নেই। সবসময় খোলা থাকে বাড়ি। খোলা ঘরেই যেখানে সেখানে পড়ে থাকে টাকা-পয়সা, গহণা। চুরি হয় না। চুরি করবে কে? চোরই যে নেই সেই গ্রামে। তাই থানাও নেই। শুধু বাড়ি নয়, দোকান, বাজার, ব্যাংকের দরজাতেও তালা পড়ে না। আর এর কারণও অদ্ভুত।

গ্রামের মানুষ মনে করে করেন, এই গ্রামের রক্ষাকর্তা শনি দেবতা। তিনি অলক্ষ্যে সবার ঘর, সম্পদ রক্ষা করেন। সকলেরই অগাধ বিশ্বাস শনি দেবতার উপরে। আর সেই বিশ্বাসের জেরে ভারতের একমাত্র এই গ্রামেই রয়েছে ইউকো ব্যাংকের শাখা, যার কোনো দরজায় তালা লাগানোর ব্যবস্থা নেই।

এমনকি এই গ্রামের মানুষেরা বলেন, তাদের পূর্বপুরুষেরা তাদের বলে গেছেন দরজায় যেন পাল্লা না লাগানো হয়। সেই নির্দেশ এখনও তারা মেনে চলেন এবং এর জেরে কোন বিপদও হয় না। প্রায় ৩০০ বছর ধরে এই নীতি চলছে মহারাষ্ট্রের এই গ্রামে। তবে নামে গ্রাম হলেও এখন রীতিমতো শহর এই শনি শিঙ্গনাপুর।

সূত্র: ডিএমপি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *