যেকোনো সংলাপের জন্য আমি প্রস্তুত : ইমরান খান

অশ্রেণীকরণ প্রধান সংবাদ

.

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যেকোনো সংলাপের জন্য আমি প্রস্তুত।’আজ বুধবার গণমাধ্যমে দেওয়া এক ভাষণে এসব কথা বলেন ইমরান খান।ইমরান খান বলেন, ‘পুলওয়ামার পর আমি ভারতকে বলেছিলাম যেকোনো তদন্তের জন্য আমরা প্রস্তুত আছি। পুলওয়ামাতে হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। আমি জানি কী রকম আঘাত তাঁরা পেয়েছেন। কারণ গত ১০ বছর ধরে ৭০ হাজার হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। ১০ বছরে কতগুলো হাসপাতালে আমি গিয়েছি। বোমায় আহতদের আমি দেখেছি, পা নেই, চলতে পারে না, চোখ নেই। আমি জানি এক যারা পৃথিবী ছেড়ে চলে গেছে আর যারা আহত হয়েছে তাদের আর তাদের স্বজনদের ওপর কী হচ্ছে। এ কারণে আমি সরাসরি ভারতকে প্রস্তাব দিয়েছি যে কোনো ধরনের তদন্ত আপনারা চান, যদি পাকিস্তানের কোনো সংযোগ থাকে পাকিস্তান সহযোগিতা করতে প্রস্তুত।’ইমরান আরো বলেন, ‘কোনো সার্বভৌম রাষ্ট্র অন্য রাষ্ট্রকে তার অভ্যন্তরে প্রবেশ করে তদন্ত করার অনুমতি দিতে পারে না। অনুমতি দিতে পারে না অন্য রাষ্ট্রকে যে সে তদন্ত করে, বিচার ও শাস্তি দেওয়ার ভার নিজেই নিয়ে নেয়। ভারতের নির্বাচন সামনে। মনে হচ্ছিল এ কারণে কোনো অ্যাকশন নিতে পারে।’পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা অপেক্ষা করেছি কারণ ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে ধারণা ছিল না। যতক্ষণ না আমাদের ধারণা না হয় তার আগে অ্যাকশন নিলে তা দায়িত্বজ্ঞানহীন কাজ হতো।’ তিনি বলেন, ‘আজ অ্যাকশন নিয়েছি। পরিকল্পনা ছিল কোনো ক্ষতি না হয়, হতাহত না হয়, আমরা বলতে চেয়েছি আমাদেরও সামর্থ্য আছে।’ ইমরান খান বলেন, ‘দুই যুদ্ধ বিমান সীমান্ত ক্রস করেছে, গুলি করা হয়েছে। এখন কী হবে? খুব জরুরি এখানে বিবেক ও প্রজ্ঞার ব্যবহার করা। যত যুদ্ধ হয়েছে বড় বড় সব যুদ্ধে মিস ক্যালকুলেশন হয়েছে। কেউ ভাবেনি যে যুদ্ধ শুরু করেছি তা কোথায় যাবে। প্রথম বিশ্বযুদ্ধ একমাসের মধ্যে শেষ হওয়ার কথা তা ছয় বছর লেগেছে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে হিটলার চেয়েছেন রাশিয়া ধ্বংস করে দেবেন কিন্তু তিনি রাশিয়ার শীত নিয়ে ভাবেননি। সেখানে তিনি ধ্বংস হয়ে গেছেন। একই ভাবে ওয়ার অন টেররিজমে কি যুক্তরাষ্ট্র ভাবতে পেরেছিল ১৭ বছর পর্যন্ত তারা আফগানিস্তানে ফেঁসে যাবে? আমেরিকা ভেবেছিল ভিয়েতনাম যুদ্ধ এত বড় হবে?’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *